শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

গোলাপগঞ্জে নববধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী আটক

  • গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
  • ২০২৪-০৭-১০ ১৭:১৮:২৫

সিলেটের গোলাপগঞ্জে নববধূ তানজিনা ইসলাম (২১) এর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়েছে। নিহতের পরিবারের দাবি তানজিনাকে পরিকল্পিত ভাবে তার স্বামী হত্যা করেছেন। স্বামীর পরিবারের দাবি তানজিনা নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন। উক্ত ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী প্রবাসী হাবিবুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা  হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দিবাগত রাতে কোন এক সময় উপজেলার দক্ষিণকানিশাইল গ্রামের হাবিবুর রহমানের শয়নকক্ষে।
জানা যায় চলতি বছরের ২১ জুন উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউপির দক্ষিণ কানিশাইল গ্রামের আলমাছ মিয়ার ছেলে কাতার প্রবাসী হাবিবুর রহমানের সাথে একই উপজেলার শরীফগঞ্জ ইউপির বসন্তপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে তানজিনা ইসলামের সাথে ইসলামী শরীহা মোতাবেক বিবাহ হয়। বিবাহের ১৮ দিনের মাথায় তার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার ভোরবেলা নিহত তানজিনা ইসলামের স্বামীর বাড়ি থেকে তার পিত্রালয়ে সংবাদ দেয়া হয় তানজিনা ইসলাম সোমবার গভীর রাতের কোন এক সময় পরিবারের সকলের অজান্তে আত্মহত্যা করেছেন। সংবাদ পেয়ে নিহতের পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে আসেন এবং তানজিনা ইসলামকে তার শয়নকক্ষে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। নিহত তানজিনা ইসলামের পরিবারের দাবি তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে। তার গলায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তারা সুষ্ঠু বিচারের দাবি করেছেন। এদিকে নিহতের স্বামীর বাড়ির দাবি তানজিনা ইসলাম নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। অপর দিকে গোলাপগঞ্জ থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছেন সেটি আত্মহত্যা হতে পারে। তবে তাকে চাপ সৃষ্টি করে আত্মহত্যা করানো হয়েছে। সংবাদ পেয়ে এএসপি (সার্কেল), গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাছুদুল আমিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং লাশ উদ্ধার করে সিলেট ওমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন। ময়না তদন্ত শেষে বুধবার পরিবারের হাতে লাশ হস্তান্তর করা হবে বলে জানা যায়। এ ব্যপারে থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে। উক্ত ঘটনায় নিহতের স্বামী প্রবাসী হাবিবুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। নববধু তানজিনা ইসলাম বিবাহের ১৮দিনের মাথায় আত্মহত্যা করেছেন নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার এ রহস্যজন মৃত্যু নিয়ে উপজেলা জুড়ে নানা গুঞ্জন শুনা যাচ্ছে। 
নববধুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাছুদুল আমিন। এ ঘটনায় স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তবে নিহত তানজিনা ইসলামকে হত্যা করা হয়েছে নাকি তিনি নিজেই আত্মহত্যা করেছেন বিষয়টি মেডিক্যাল রিপোর্ট আসার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে এ প্রতিবেদককে জানান তিনি। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে তানজিনা ইসলাম আত্মহত্যা করতে পারেন।


এ জাতীয় আরো খবর