Personal data policy

We use cookies to improve the functionality of our sites, to be able to perfect content and desire ads to you and for us to be able to ensure that the services work nicely : About our cookies and personal information

সর্বশেষ সংবাদ ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে চীনের ক্রমবর্ধমান শক্তি মোকাবেলায় একাট্টা যুক্তরাজ্য যুক্তরাষ্ট্র অস্ট্রেলিয়া                 আফগানিস্তানকে বাইরে থেকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা উচিত নয়- ইমরান খান                 ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদের করোনা টিকার আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্য                 সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির ফলে ২০৫০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের প্রায় ১৭ শতাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে যেতে পারে                 সরকারের নতুন কিছু নির্দেশনার বিরুদ্ধে প্রায় ২ হাজার তুর্কির বিক্ষোভ                 কঠোর নিরাপত্তা সম্পন্ন কারাগার থেকে পালানো ছয় ফিলিস্তিনির মধ্যে ৪জন আটক                  জো বাইডেন-শি জিনপিং ফোনালাপঃ দুই দেশের মধ্যে ‘প্রতিযোগিতা’ যেন ‘সংঘাতে’ পরিণত না হয়                 ১১ সেপ্টেম্বর শপথ নিতে যাচ্ছে আফগানিস্তানে তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকার,৬ দেশ আমন্ত্রিত                  ক্যামেরাম্যানকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল রুশ মন্ত্রীর                 আফগানিস্তানের নতুন সরকার ও নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখবে চীন                 বন্দি বোঝাই কারাগারে অগ্নিকাণ্ডে ইন্দোনেশিয়ায় ৪১ জন নিহত                 আফগানিস্তানে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে                 দোহায় কাতারের আমিরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী                 ইসরায়েলের সবচেয়ে সুরক্ষিত কারাগার থেকে এই ছয় জন ফিলিস্তিনি বন্দী পালিয়ে যাবার                 সেনা অভ্যুত্থানের মাধ্যমে গিনিতে ক্ষমতা দখল করলো সেনাবাহিনী, প্রেসিডেন্ট আটক                 নতুন সরকার ও কেবিনেট সদস্যদের নাম আগামী সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে-তলেবানের মুখপাত্র                  কুর্দিস্তানে বাস খাদে পড়ে অন্তত ১৪ জন নিহত                 জাতিসংঘের মহাসচিব আফগানিস্তানে খাদ্য সংকটসহ মানবিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন                 আফগানিস্তানে বহুমুখী চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে তালেবানের নতুন সরকার                 আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার ‘যুক্তরাষ্ট্রের সেরা সিদ্ধান্ত-বাইডেন                  আফগানিস্তান ত্যাগ করেছে সকল মার্কিন সৈন্য                 দুই নৌকার মুখোমুখি সংঘর্ষে পেরুতে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যু                 ‘আইএস’র জোড়া আত্মঘাতি বোমা হামলায় কাবুল বিমান বন্দরে প্রাণহানির ঘটনায় নিন্দা বিশ্ব নেতাদের                 আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল বিমানবন্দরের কাছে দু'দফা বোমা হামলা, নিহত ১৩                 করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্বব্যাপী ৫শ’ কোটিরও বেশি টিকা প্রয়োগ                 এনআরএফ এর হাজার হাজার যোদ্ধা তালেবান-বিরোধী যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত                 যুক্তরাষ্ট্রের এক উদ্ধারকারী সামরিক বিমানে জন্ম নেয়া আফগান শিশুর নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন                 নিউইয়র্ক ও কানেটিকাটে জরুরি অবস্থা ঘোষণা                 অন্য দেশগুলির উচিত নয় নিজেদের মতামত আফগানিস্তানের উপর চাপিয়ে দেওয়া                  আফগানিস্তানে দুইটি ভারতীয় দূতাবাসে তালেবান হানা,তছনছ করার পর দুইটি গাড়িও নিয়ে গেছে                 গোলাপগঞ্জ সামাজিক সংগঠন ঐক্য পরিষদকে প্রবাসী দানবীর আবুল কালামের অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান                  আফগানিস্তানে আমরুল্লাহ সালেহ নিজেকে দেশের বৈধ ও সাংবিধানিক প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন                 আফগানিস্তানে আমরুল্লাহ সালেহ নিজেকে দেশের বৈধ ও সাংবিধানিক প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন                 সংযুক্ত আরব আমিরাতে পরিবারসহ আশ্রয় নিয়েছেন আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট                 বাংলাদেশ দূতাবাস আঙ্কারায় জাতীয় শোক দিবস এবং বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী পালন                 জো বাইডেনের আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত সংঘাতের ‘যৌক্তিক সমাপ্তি’ : পাকিস্তান                 কূটনীতিক ও বেসামরিক ব্যক্তিদের সরিয়ে নিতে আবার কাবুল বিমানবন্দর চালু                  কাবুলে আফগান প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবনে অস্ত্র নিয়েই ভূরিভোজ                 মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন                 কাবুল বিমান বন্দরের প্যাসেঞ্জার টার্মিনালে গুলিতে অন্তত পাঁচজন নিহত                  সকলের সহযোগিতায় নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন আরও বেগবান হবে-ইলিয়াস কাঞ্চন                  বাংলাদেশ দূতাবাস আঙ্কারার উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের উপর চারদিনব্যাপি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন                 আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার নিয়ে বাইডেনের কোন অনুশোচনা নেই।                  দাবানলে আলজেরিয়ায় অন্তত ৬৫ জন প্রাণ হারিয়েছে                 আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত অর্থমন্ত্রী খালিদ পায়েন্দা পদত্যাগ করে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছেন                 কান্দাহার, খোস্ত ও পাকতিয়া প্রদেশে ২৭ শিশু নিহত                 বাংলাদেশকে ১১.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র                 তালেবান যোদ্ধারা আফগানিস্তানের একের পর এক শহর দখল করে নিচ্ছে                  চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরের সব বাসিন্দার করোনা পরীক্ষা করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ                 ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেলেন                

Friday, September 17, 2021
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন


বিশ্ব সংবাদ


জঙ্গি নারী সুজানা এক বিস্ময়কর চরিত্র
সকালের আলো ডেস্ক :
সময় : 2014-11-09 19:01:14

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হত্যার পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে যে নারী আসামে গ্রেফতার হয়েছেন, তার নাম সুজানা বেগম। আসামের গুয়াহাটি ইন্টারস্টেট বাস টার্মিনাল থেকে এই নারীকে আটক করে ভারতীয় পুলিশ।   সুজানা নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য। জেএমবির নেতা ডা. শাহনুর আলমের স্ত্রী এবং পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় মোস্ট ওয়ান্টেড ১২ জঙ্গির একজন।  

      ভারতীয় জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এনআইএ) বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বিস্ফোরণের তদন্তে নেমে শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়াকে হত্যার পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে পারে অক্টোবরের শেষ দিকে। বর্ধমানের বিস্ফোরণের পর সেখানকার অবস্থাটি দাঁড়ায় কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরোনোর মতোই। তদন্ত যত এগোচ্ছে ততই চমকের পর চমক দেখছে ভারতীয় গোয়েন্দারা। পশ্চিমবঙ্গ ও আসাম ঘিরে বাংলাদেশের জঙ্গিদের নেটওয়ার্ক ও কর্মকাণ্ডে থ বনে যান তারা।   সুজানা আসাম থেকে আটক প্রথম নারী জঙ্গি। আসামে শুরু করতে যাওয়া জেএমবির নারী উইংয়েরও প্রধান তিনি। আসাম পুলিশের ডিআইজি এ জে বড়ুয়া জানান, সুজানা বেগম আসামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মেয়েদের জোগাড় করে জঙ্গি প্রশিক্ষণ দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। তিনি ও তার স্বামী শাহনুর আলম বর্ধমানের শিমুলিয়া মাদ্রাসা থেকে জঙ্গি প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।   সুজানার স্বামী শাহনুরের মাথার দাম এনআইএ ৫ লাখ টাকা ঘোষণা করেছিল। স্ত্রী ধরা পড়ার পর গোয়েন্দাদের মনে হচ্ছে, তারও মাথার দাম ধরা হলে স্বামীকে সে অনায়াসে পেছনে ফেলত। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা থেকে আসাম পুলিশের বড়কর্তারা মোটামুটি নিশ্চিত, সুজানা নিছকই বরপেটার চতলা গ্রামের ফেরার হাতুড়ে ডাক্তার শাহনুর আলমের স্ত্রী নন বরং জিহাদি সংগঠনে হয়তো শাহনুরের থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র তিনি। এমনকি শাহনুরকে তিনিই জিহাদের পথে টেনে এনেছিলেন বলে মনে করছেন তারা।

  অথচ খাগড়াগড় বিস্ফোরণের তদন্তে নেমে এই সুজানাকেও প্রাথমিকভাবে সন্দেহের তালিকাতেই রাখেননি গোয়েন্দারা! বরং বর্ধমানের মঙ্গলকোটের শিমুলিয়া মাদ্রাসায় অনুদান পাঠানোর সূত্রে শাহনুরকেই খুঁজছিল এনআইএ। হঠাৎ পুলিশ খবর পায়, দেড় বছরের ছেলেকে নিয়ে বেঙ্গালুরু পালাচ্ছেন সুজানা। তার পরেই জাল বিছিয়ে গুয়াহাটির বাস টার্মিনাস থেকে পাকড়াও করা হয় তাকে। গ্রেফতারের পর সুজানাকে টানা জেরা করতে গিয়েই অবাক হয়ে যান পুলিশ ও কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বাহিনীর কর্মকর্তারা। তখনই তারা জানেন, সুজানা শুধুই জিহাদে স্বামীর ছায়াসঙ্গী ছিলেন না, তার চেয়েও বেশি ছিলেন।   কী রকম? পুলিশ সূত্রের খবর, সুজানা ওরফে সুরজিয়া নিজে কলেজশিক্ষিত। শাহনুর গিয়েছিলেন শিমুলিয়া মাদ্রাসায় পড়তে। সুজানা তখন ওই মাদ্রাসাতেই জিহাদি প্রশিক্ষণ দিতেন। সেখানেই শাহনুরের সঙ্গে তার আলাপ। পুলিশের ধারণা, হয়তো সুজানাই শাহনুরকে জিহাদের পথে টেনে এনেছিলেন।   জেরা করতে গিয়ে সুজানার আরো বেশ কয়েকটি ‘গুণ’-এর কথা জানতে পেরেছে তারা। জঙ্গি প্রশিক্ষণ দেওয়া বিভিন্ন মাদ্রাসায় হাওয়ালা মারফত টাকা পাঠাতেন শাহনুর। সুজানাই সেই হাওয়ালার খুঁটিনাটি তদারক করতেন। ইন্টারনেটে জিহাদের স্থানীয় নেটওয়ার্ক বাড়িতে বসেই নিয়ন্ত্রণ করতেন তিনি। মাঝে মাঝে সুজানা নিজেই পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন ঘাঁটিতে যেতেন। শিমুলিয়া মাদ্রাসাসহ একাধিক জিহাদি ঘাঁটিতে তার নামেই নিয়মিত লক্ষাধিক টাকার অনুদান পাঠানো হতো।   সুজানাকে জেরা করে বেশ কিছু ইমেইল আইডির সন্ধান পেয়েছে পুলিশ ও এনআইএ। সেসব আইডি খুঁটিয়ে দেখা হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে বরপেটায় কোন পথে টাকা আসত, তার খোঁজও চলছে। গুয়াহাটির মুখ্য বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে তোলা হলে তাকে ১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতে দেওয়া হয়।

  সুজানার সঙ্গে আসামের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের যোগাযোগ রয়েছে বলেও জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা। নিরীহ গৃহবধূর ছদ্মবেশে এই ধরনের জিহাদি নারীবাহিনী গড়ে ওঠা দেখেই গোয়েন্দারা কিছুটা অবাক। তারা বলছেন, এত দিন ধরে বিভিন্ন জঙ্গি ঘাঁটিতে পুরুষদেরই দেখা গেছে। কিন্তু এই সংগঠনগুলো যে নারীবাহিনীও তৈরি করেছে, সে ব্যাপারে চোখ খুলে দিল খাগড়াগড়।   বিস্ফোরণের পরেই খাগড়াগড়ের বাড়িতে পুলিশকে আটকাতে রিভলবার উঁচিয়ে তেড়ে এসেছিলেন আলিমা ও রাজিয়া বিবি। জেরার সময়ে নানাভাবে পুলিশকে বিভ্রান্ত করতেন তারা। একইভাবে গোয়েন্দাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছিলেন নদীয়ার খানসা বিবি। সুজানার মতো খানসার স্বামী জহিরুল শেখকে খুঁজছে পুলিশ। নদীয়ার থানারপাড়ায় জহিরুলের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে ৪১টি জিলেটিন স্টিক ও প্রচুর জিহাদি কাগজপত্রের পাশাপাশি একটি ডায়েরিও মেলে। তাতে লেখা ‘রক্ত’, ‘জিহাদ’, ‘হাতে তুলে নাও তরোয়াল, একে ৪৭’-এর মতো কথাগুলোকে গজল বলে চালানোর চেষ্টা করেছিলেন খানসা। তিনিও প্রমীলা জঙ্গি বাহিনীর সদস্য বলে গোয়েন্দাদের দাবি। খানসাকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। গোয়েন্দা সূত্রের খবর, বর্ধমানের জঙ্গি ঘাঁটির শীর্ষ চরিত্র সাজিদের স্ত্রী ফাতেমাও এই প্রমীলা বাহিনীর সদস্য। তারও সন্ধান চলছে।   গোয়েন্দাদের সন্দেহ, এ রাজ্যের বহু জেলাতেই এমন সুজানা-খানসা লুকিয়ে রয়েছে। আপাতভাবে যাদের দেখে জঙ্গি বলে মনে না হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আসলে এরা শুধু জিহাদি মগজধোলাই নয়, অস্ত্র চালাতেও পুরুষদের সঙ্গে সমানে সমানে টক্কর দিতে পারে। আর ধরা পড়ে গেলে পুলিশ-গোয়েন্দাদের কথার জালে বিভ্রান্ত করতেও তারা রীতিমতো সিদ্ধহস্ত।     তথ্যসূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা 

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter