শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

কোটা বাতিলের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে মাভাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশ

  • আব্দুস সাত্তার
  • ২০২৪-০৭-০৬ ২৩:১৫:২০

প্রতিনিধি,টাঙ্গাইল: সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থা বাতিলের দাবিতে ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকাল সাড়ে ১০ থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত  মহাসড়কের টাঙ্গাইল শহর বাইপাস আশেকপুর এলাকায় অবরোধ করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়।যার ফলে মির্জাপুরের নাটিয়াপাড়া থেকে কালিহাতীর এলেঙ্গা পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়।
শিক্ষার্থীরা হাতে ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই,একাত্তরের বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই, কোটা প্রথা নিপাত যাক মেধাবীরা মুক্তি পাক' ইত্যাদি ¯েøাগান দিতে থাকেন। ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহাল। পরিপত্র পুনর্বহাল সাপেক্ষে কমিশন গঠন করে দ্রæত সময়ের মধ্যে সরকারি চাকরিতে (১ম থেকে ৪র্থ শ্রেণি) সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ কোটা রেখে ‘কোটা সংস্কার’ করা। কোটায় যোগ্য প্রার্থী না পাওয়া গেলে শূন্য পদগুলোতে মেধা অনুযায়ী নিয়োগ দেওয়া। দুর্নীতিমুক্ত, নিরপেক্ষ ও মেধাভিত্তিক আমলাতন্ত্র নিশ্চিত করার দাবি জানান তারা।
এ সময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, বৈষম্য থেকে মুক্তির জন্য দেশ স্বাধীন হয়েছে। স্বাধীন বাংলায় সেই বৈষম্য যেন আর না থাকে তাই সাধারণ শিক্ষার্থীরা আজ জেগে উঠেছেন। দেশে বর্তমান সময়ে অনেক শিক্ষার্থী চাকরি না পাওয়ার হতাশায় ভুগছেন।অপরদিকে কোটা চাকরিতে বহাল রেখে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অন্যায় করা হচ্ছে। কোটা থাকার কারণে সাধারণ শিক্ষার্থীরা পিছিয়ে পড়ছেন। অথচ কোটাধারী শিক্ষার্থীরা সুবিধা পাচ্ছেন। তাই তাঁরা বিদ্যমান কোটাব্যবস্থার সংস্কার চান। চাকরিতে কোটাব্যবস্থা সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য বিষফোড়ার মতো বলে মনে করেন তারা।এ সময় পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রায় দেড় ঘন্টা মহাসড়কে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে চলে যান।
টাঙ্গাইল সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ  (ওসি) লোকমান হোসেন জানান,শিক্ষার্থীরা সড়ক থেকে সরে যাওয়ার পর দ্রæত সময়ের মধ্যে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

 


এ জাতীয় আরো খবর