শুক্রবার, মে ৩১, ২০২৪

হত্যার হুমকির অভিযোগে কাদের মির্জার জিডি

  • ইমাম হোসেন খাঁন :
  • ২০২৪-০৫-১৪ ২৩:১৬:২৭

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘিরে আবারও আলোচনায় কোম্পানীগঞ্জ। একদিকে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদল, অপরদিকে আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ গোলাম শরীফ চৌধুরীকে সমর্থন দিয়ে বিভিন্ন স্থানে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।
মোবাইলে মিজানুর রহমান বাদলের অনুসারি কর্তৃক হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে অভিযোগ এনে মঙ্গলবার বিকেলে কোম্পানীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়রি করেছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। একই অভিযোগে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী নিজের ভাই শাহাদাত হোসেনকেও অভিযুক্ত করেছেন তিনি। এরআগে ভোটারদের হুমকি ধমকির অভিযোগ এনে আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েছিলেন মিজানুর রহমান বাদল।
সাধারণ ডায়েরিতে মেয়র কাদের মির্জা উল্লেখ করেন, আগামী ২৯ মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান বাদলে অনুসারীরা গত কয়েকদিন ধরে তার ব্যবহৃত মোবাইলে কল করে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। এছাড়াও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার পার্শ্ববর্তী দাগনভূঞা সুবর্ণচর, কবিরহাট ও সেনবাগ উপজেলার অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদেরকে ভাড়া এনে কোম্পানীগঞ্জের শান্তির পরিবেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান বাদল। গত কয়েকদিন ধরে নানাবিধ কর্মতৎফরতা চালিয়েছে। তার এসকল কৃতকর্মে কোম্পানীগঞ্জের আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন মিকন, মো. আইয়ুব আলী, সালেকিন রিমন, জাহেদুল হক কচি, আবদুর রাজ্জাক’কে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আতংকের মধ্যে রেখে নির্বাচন বানছালের চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেন মির্জা।
এছাড়াও আরেক সতন্ত্র উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাদাত হোসেন মোবাইলে তার কর্মী বসুরহাট পৌরসভার ০৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রাসেল, বসুরহাট পৌরসভা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হামিদ উল্যা হামিদ, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আইনুল মারুফকে অকথ্য ভাষায় গালীগালাজ করে হত্যার হুমকি প্রদান করেছে বলেও অভিযোগে উল্লেখ করেন মির্জা। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চস্তরের কর্মকর্তাদের অবগত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রনব চৌধুরী বলেন, অভিযোগটি আমরা পেয়েছি তদন্ত করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 


এ জাতীয় আরো খবর