শুক্রবার, মে ৩১, ২০২৪

খানজাহান আলী থানা এলাকাতে ফ্রি সিমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা নিবন্ধিত সিম যাচ্ছে অপরাধীদের হাতে

  • শেখ বদর উদ্দিন
  • ২০২৪-০৪-০১ ২১:১৩:৪৯

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি  ঃ  বিনামূল্যে মোবাইল ফোনের সিম দেয়ার আশ্বাস দিয়ে খানজাহান আলী এলাকাতে সাধারণ মানুষকে ফাঁদে ফেলে ফিঙ্গার প্রিন্ট ও জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে তারা। পরবর্তীতে এসব তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা হচ্ছে সিম। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে রেজিস্ট্রেশন করা এসব সিম তুলে দেয়া হচ্ছে অপরাধীদের হাতে। গত ১২ মার্চ খানজাহান আলী থানা এলাকার মহসেন শ্রমিক কলোনি , গিলাতলা দক্ষিপাড়া, শ্রামগজ্ঞ এলাকাতে  যায় একটি প্রতারক চক্র তারা গ্রামের সহজ সরল মানুষেেদর ফ্রি মোবাইল এর সিম সাথে ফ্রি মিনিট এবং  ইন্টারনেট এর  লোভনীয় অফার দিয়ে তাদের কাছ থেকে এনআইডি কার্ড ও ফ্রিঙ্গার প্রিন্ট নিলেও তাদেরকে সিম না দিয়ে চলে আসে। এর মধ্যে রয়েছে লাইলি বেগম, রোকেয়া বেগম, ছবেলা আক্তার, লতিফা বেগম, ঝর্না বেগম , পান্না মিয়া সহ এমন অসংখ্য ব্যক্তি প্রতারকদের খপ্পরে পড়েছে। এর মধ্যে লাইলি বেগম বলেন আমার ফ্রিঙ্গার প্রিন্ট নিলো আইডি কার্ড নিলো আমাকে মোবাইলের  সিম দিলোনা কয়েকদিন পর আমাকে থানা থেকে ফোন দিয়ে বলে আপনার সিম দিয়ে প্রতারনা করছেন আপনাকে আইনের আওতায় আনা হবে , এ কথা শোনার পর আমি মানষিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছি , প্রতারকের খপ্পড়ে পড়া পান্না মিয়া বলেন আমি জুট মিলে কাজ করতাম মিল বন্ধ ফ্রিতে সিম দিবে এটা শুনে ফ্রিঙ্গার প্রিন্ট দিয়েছে কিন্তু সিম না দিয়ে চলে গেছে। এখন আমাদের ওই সিম দিয়ে প্রতারনা করা হচ্ছে। একটি সুত্রে জানা যায় এ সকল প্রতারকরা প্রতিটি সিম তিন’শ থেকে পাঁচ শত টাকায় বিক্রি করে । বেশিরভাগ সিম ব্যবহৃত হয় ভিওআইপি ব্যবসায়। পাশাপাশি এসব সিম ব্যবহার করে মোবাইল ব্যাংকিং প্রতারণা, অপহরণ করে চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে  ব্যবহার করা হয়। খানজাহান আলী থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই পীযুষ বলেন এসকল  প্রতারকদের খপ্পড়ে পড়ে নিজের বিপদ নিজে ডেকে আনা যাবেনা। অবশ্যই সাধারন মানুষকে বেশি করে সচেতন হতে হবে  ।


 

 


এ জাতীয় আরো খবর