শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪

রাজা কৃষ্ণ মেনন পরিচালিত “পিপ্পা” একটি অসাধারণ ছবি

  • খ ম হারুন
  • ২০২৩-১১-১৫ ২০:১৪:৫৮

অবশেষে ছবিটা দেখলাম। রাজা কৃষ্ণ মেনন পরিচালিত “পিপ্পা”
যে ছবির গান নিয়ে এতো বিতর্ক। ছবির ৬৩ মিনিটে মাত্র ৪০ সেকেন্ড ব্যপ্তিকালের এই গানটি এমন ভাবে সংযোজন করা হয়েছে, যা বাংলাদেশ ও পশ্চিম বাংলায় য়থেষ্ট বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। 
আমাদের দেশে এখন শুনতে হয় মুক্তিযুদ্ধের ছবি নাকি দর্শক দেখেনা। যারা এ ধরনের মন্তব্য করেন তাদের বলবো “পিপ্পা” ছবিটা দেখতে। ভারতের এক ধরনের ট্যাংকের নাম “পিপ্পা” যা জল ও স্থলে সমানতালে চলতে পারে। এই ট্যাংক রেজিমেন্টের ক্যাপ্টেন বলরাম সিং মেহতা, তার বড় ভাই মেজর রাম মেহতা এবং বোন রাধা মেহতা - এই তিন ভাইবোন সকলেই ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের হযে পূর্ব ফ্রন্টে যুদ্ধ করেছিলেন, যা সে সময়ের একটি সত্য ঘটনার একটি চলচ্চিত্র আয়োজন এই ২০২৩ সালে। কোথাও ভারত-পাকিস্তানের যুদ্ধ কথাটি বলা হয়নি, যা এখন ভারতের ছবিতে হরহামেশাই বলা হযে থাকে। ছবিতে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অংশগ্রহণকেই প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। এমনকি ট্যাংকেও বহন করা হয়েছে বাংলাদেশের পতাকা। প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, জেনারেল শ্যাম মানেকশ সহ কয়েকটি ঐতিহাসিক চরিত্রের সমাবেশ ঘটানো হয়েছে চলচ্চিত্রে। সেই সময়কার পোস্স্টারও ব্যবহার করা হযেছে। খালে বিলে নদীতে শত শত মানুষের লাশ, যা ছিলো সে সমযকার নিত্যঘটনা, তাও তুলে ধরা হযেছে মুক্তিযুদ্ধের সময বাংলাদেশের পরিবেশ বোঝানোর জন্য। প্রধান তিনটি চরিত্রে (ভাইবোন) অসাধারন অভিনয় করেছেন ইশান খট্টর, মৃণাল ঠাকুর এবং প্রিয়াংশু পাইনুলি। 
ছবির সংগীত পরিচালক এ আর রহমান। তার কিন্তু এখনো সুযোগ আছে এই অসাধারন ছবিটিতে আমাদের বিদ্রোহী কবির গানটির সঠিক প্রয়োগ করার। এতো গবেষনা, এতো শ্রম যা আছে এই ছবি নির্মাণের নেপথ্যে তা আমাদের অতি পরিচিত “কারার ঐ লৌহ কপাট” গানটির কারনে বিতর্কিত হোক তা চাইতে পারিনা।
ছবিটা দেখুন। এখন পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে সুনির্মিত এতো বড় ক্যানভাসের ছবি আরেকটি নেই। যারা মুক্তিযুদ্ধ দেখেছেন তারা আবার একাত্তরকে খুঁজে পাবেন “পিপ্পা”র মাঝে। নির্মাণ, সৃজনশীলতা, অভিনয় ও কারিগরি কুশলতা আমাকে মুগ্ধ করেছে।

 


এ জাতীয় আরো খবর