সর্বশেষ সংবাদ ইউএস ইলেকশন ২০২০। সর্বশেষ প্রেসিডেন্সিয়াল ডিবেটের ফলাফল                 সাংবাদিক খাশেগিকে নিয়ে                  পুলিশি হেফাজতে মৃত্যুর দায়ভার কার?                 'মুজিব বর্ষের শপথ-সড়ক করবো নিরাপদ' আমাদের করণীয়                 মুজিববর্ষের শপথ, সড়ক করবো নিরাপদ                 নিজের মতে পথ চলতে নিসচার মানা !                 যদি তুমি উন্নয়নশীল দেশের সমস্যার সমাধান করতে চাও তাহলে নারীবাদী হও                 আইনের শাসন এবং অবাধ গনতন্ত্র আপনারা ক্ষমতায় না থাকলেও আপনাদেরকে ভবিষ্যতে সুরক্ষা দিবে                 ট্রাম্প করোনাক্রান্ত এবং অসংখ্য প্রশ্ন                 সমাজে গোষ্ঠী-স্বার্থ রক্ষাকারী রাজনীতির পূনরোত্থান বর্তমান সময়ে বিশ্বব্যাপী লক্ষ্যনীয় যা অযাচিত                 সেপ্টেম্বরে বিশ্বব্যাপী করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আগের মাস থেকে বৃদ্ধি পেয়েছে দিনে গড়ে ৩০ হাজার জন করে                 বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে কাজ করছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা                 সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা একজন বেঈমান এবং অকৃতজ্ঞ!                 সমাজে ঐ শিশুটি কবে জন্মাবে যে বলবে মন্ত্রী মহোদয় ল্যাংটা ?                 মৌলবাদ ও সমাজতন্ত্র বনাম পুঁজিবাদ ও গনতন্ত্র-আমি যেভাবে দেখি                 করোনাভাইরাসের আক্রমণে মৃত্যুর মিছিলে বিশ্বের প্রথম ২০টি দেশ                  বাংলাদেশে রাজনীতির বর্তমান অবস্থা এবং উত্তরণের পথ                 সামরিক স্বৈরশাসনের সমাপ্তি! অত:পর দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রক্তাক্ত গনতন্ত্রের অনুশীলন শুরু!!                 "মাদক ফেলে এসো সবাই হাতে হাত ধরি মানবসেবায় শপথ করে নতুন জীবন গড়ি"                 প্রাণের খুলনা- ভাবনা ও স্বপ্ন                 বিশ্বে করোনা সংক্রমণ কমেতো নাই বরং ক্রমাগত বাড়ছে                 করোনাকালীন শিক্ষা ব্যবস্থায় ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কিছু ভাবনা                 ওবায়দুল কাদের ভাইয়ের সততা নিয়ে এখনও কেউ প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবেনা                 প্রকৃত শিক্ষা আমাদের প্রকৃত মানুষ হতে সাহায্য করে                 অভিশপ্ত আগস্ট                 ভ্যাকসিনই করোনা ভাইরাসের শেষ মহৌষধ নাও হতে পারে                 বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার, বিচারহীনতার সংস্কৃতি এবং বর্তমান সরকার                 বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ                 আওয়ামীলীগের শেকড় অনেক গভীরে; আওয়ামীলীগ সরকারের শেকড় এখন টবে!!                 হত্যাকাণ্ড তা যেভাবেই হোক মানবতার বিপর্যয়                

Tuesday, October 27, 2020
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন


উপ-সম্পাদকীয়


আইনের শাসন এবং অবাধ গনতন্ত্র আপনারা ক্ষমতায় না থাকলেও আপনাদেরকে ভবিষ্যতে সুরক্ষা দিবে
মোঃ শফিকুল আলম :
সময় : 2020-10-08 12:14:25

আওয়ামীলীগ নেতৃত্ব এবং পুলিশ প্রশাসন এখন এক এবং অবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পার্থক্য করে দেখার মতো দৃশ্যত: কোনো separate Characteristics নেই। ক্ষমতার অপব্যবহার সবচাইতে বড় দুর্নীতি।

অসৎ এবং লোভী চরিত্রের আওয়ামীলীগ নেতৃত্বকে ব্যবহার করে পুলিশের দুর্নীতি এবং স্বেচ্চাচারিতা কোনো কোনো জায়গায় তৃনমূলে গ্রথিত হয়েছে।
পুলিশের চৌকষ বি সি এস অফিসার স্থানীয় অসৎ এবং অযোগ্য নেতৃত্বকে সহজেই প্রভাবিত করতে পারছে। কোনো কোনো পুলিশ অফিসার ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের সদস্য থাকার কারনে এখন সংশ্লিষ্ট এলাকায় আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব গ্রহন করেছে। সৎ ছাত্রনেতৃত্বের সৎ পরামর্শ গ্রহন তাদের জন্য আবশ্যক নয় ; বরং আকারে এবং ইঙ্গিতে অথবা প্রকাশ্যে অথবা তাদের সামনে এম পি বা মন্ত্রীকে ফোন করে indirectly তাদের ক্ষমতার সীমা বুঝিয়ে দিচ্ছেন।
তাদের কর্ম-কান্ড বি এন পি সরকারের সময়ের পুলিশ অফিসার কহিনুরের কীর্তিকলাপ স্মরন করিয়ে দেয়।
সৎ নেতৃত্বের অসম্মান সাহসী নেতৃত্ব জন্ম দেয় না। স্থানীয়ভাবে বঙ্গবন্ধু কিভাবে নেতৃত্ব প্রতিস্ঠা করতেন তার অনেক গল্প শুনেছি জনাবা বেগম সাজেদা চৌধুরী এবং জনাব মোজাফ্ফর হোসেন পল্টু ভাই’র কাছে। 
তৎকালীন ক্ষমতসীন আওয়ামীলীগের মহানগরের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক ছিলেন যথাক্রমে জনাব গাজী গোলাম মোস্তফা এবং পল্টু ভাই। তখন ক্রীড়া প্রতি মন্ত্রী ছিলেন অধ্যাপক ইউসুফ আলী।
কোলকাতা থেকে মহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ঢাকায় খেলতে এসে টীম মেম্বাররা অধ্যাপক ইউসুফ আলীকে প্রধান মন্ত্রীর সাথে দেখা করার বায়না ধরলো।
ইউসুফ আলী সাহেব একটি সাধারন ফুটবল টীমকে সময় দেয়ার কথা বঙ্গবন্ধুকে বলার সাহস পেলেন না। তিনি বললেন , " পল্টু কাজটি তোমাকে করতে হবে। আমার সাহস হচ্ছেনা।"
পল্টু ভাই যখন প্রস্তাবটি উত্থাপন করলেন ; বঙ্গবন্ধু রেগে গিয়ে বললেন , " একটা ফুটবল টীমের সাথে আমাকে দেখা করতে হবে কেনো ? Sports minister কি করছে?" রাজনৈতিক আলোচনা শেষে অনেক রাতে বঙ্গবন্ধুর সাথে ডিনার শেষে ( বঙ্গবন্ধু না খেয়ে আসতে দিতেন না) ফিরছিলেন। বঙ্গবন্ধু বললেন , " পল্টু ওদেরকে কাল সকাল ১১টায় টাইম দাও ।" পল্টু ভাই বললেন , আপনি তো না করলেন।"
বঙ্গবন্ধু বললেন , " না করে দিলে তো তোর leadership থাকেনা পল্টু।"
কর্মীরাও যে কোনো না কোনো ইউনিটের নেতা সে কথা বোঝার আর কেউ নেই। স্কুল, কলেজ থেকে তৈরী হওয়া ছাত্রলীগ নেতৃত্ব এক যুগ থেকে শুরু করে আরও দীর্ঘ সময় ধরে কোনো নেতৃত্বের আসনে নেই। পরিবর্তে নেতৃত্বে চলে যাচ্ছে অপেক্ষাকৃত অযোগ্য এবং জুনিয়রদের কাছে। বাধ্য হয়ে সিনিয়র এবং যোগ্য নেতৃত্ব নিজেকে সম্মান বাঁচাতে লুকিয়ে রাখছেন। ছাত্রলীগের বহু সভাপতি/সাধারন সম্পাদক যুগাধিককাল অপেক্ষা করেও আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসতে পারেননি। একই এলাকায় এই সমস্ত নেতাদের এক সময়ের কর্মীরা আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসীন। কেউ আবার মন্ত্রী বা এমপি। দীর্ঘ সময়ে রাজপথে তৈরী হওয়া নেতৃত্ব দলের নীতিনির্ধারকগন ধ্বংস করে দিয়ে সংগঠনের সব পর্যায়ে ধর্ষকের পৃষ্ঠপোষক নেতৃত্ব তৈরী করছেন।
নিজ দলে তৈরী হওয়া সৎ, যোগ্য এবং পরীক্ষিতদের নেতৃত্ব না দিয়ে অর্থের বিনিময়ে যেসমস্ত ব্যবসায়ীদের দলের নেতৃত্বে বসানো হচ্ছে বা স্বাধীনতার স্বপক্ষের আওয়ামীলীগ যখন স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তিকে এমপি/মন্ত্রী বানাচ্ছেন তখন সংগত কারনে দলের অরিজিনাল নেতা-কর্মীরা তাদেরকে নেতা মানছেননা। এরা তখন ধারাবাহিকভাবে অনুপ্রবেশ ঘটিয়ে যাচ্ছেন। চোর, বাটপার, লুটেরা, দুর্নীতিবাজ এবং ধর্ষকে পরিপূর্ণ এখন আওয়ামীলীগ। একেকটা দুর্নীতিবাজ/ধর্ষকের মুখ উন্মোচিত হচ্ছে এবং তখন দলের নেতারা অনুপ্রবেশকারী চিহ্নিত করছেন। ওরাতো এখন আর অনুপ্রবেশকারী নয়; অনুপ্রবেশকারীতো অসহায় ছাত্রলীগ/আওয়ামীলীগের অরিজিনাল নেতা-কর্মীরা।
চারিদিকে শ্লোগান তীব্রতর হচ্ছে - নারীর ক্ষমতায়ন চাইনা, নারীর নিরাপত্তা দিন। আওয়ামী সন্ত্রাসী এবং চাঁদাবাজদের নিষ্ঠুরতা থেকে সাধারন মানুষ নিষ্কৃতি চায়; উন্নয়ন চায়না। দিনের নির্বাচন দিনে করুন। যার ভোট তাকে দেয়ার সুযোগ করে দিন বুঝতে পারবেন আপনাদের উন্নয়নে কতো শতাংশ মানুষ খুশি রয়েছেন। যুগে যুগে দুর্নীতি হয়েছে, ধর্ষন হয়েছে। কিন্তু সকল বিবেকবান মানুষ বলবেন আওয়ামী আমলের মতো এতো সংখ্যক ধর্ষন হয়নি, এতো হাজার হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি এতো সংখ্যক মানুষ করেনি। সাধারন একজন ড্রাইভার বা কেরানী শ’ কোটির টাকার দুর্নীতি করতে পারে একথা কেউ কখনো কল্পনায় আনতে পারেনি।
ক্ষমতায় গিয়ে লুটেরা এবং ধর্ষকদের দিয়ে সংগঠন পরিচালনা করলে দুর্নীতি আর ধর্ষনের ইতিহাস তৈরী করতে পারবেন। সামনে হয়তো এমন দিন অপেক্ষা করছে যে কোনো বিবেকবান মানুষ কখনো আওয়ামীলীগের সাথে সংশ্লিষ্ট ছিলেন বলতে লজ্জিত হবেন। এখনও সময় আছে আওয়ামীলীগ দিয়ে আওয়ামীলী পরিচালনা করুন। দেশে আইনের শাসন নিশ্চিত করুন। অবাধ গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করুন। আইনের শাসন এবং গনতন্ত্র আপনারা ক্ষমতায় না থাকলেও ভবিষ্যতে আপনাদেরকে সুরক্ষা দিবে।

লেখকঃঅস্ট্রেলিয়া থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় অনলাইন বাংলাকথার যুগ্ম-সম্পাদক।ছাত্রলীগ ঢাকা ইউনিটের সাবেক সভাপতি এবং সাবেক নির্বাহী সদস্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি। 

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter